ট্রেড লাইসেন্স কিভাবে করবেন

ঢাকায় সেবা দেওয়ার জন্য সিটি করপোরেশনকে দশটি অঞ্চলে বিভক্ত করা হয়েছে।এর মধ্যে উত্তর সিটি করপোরেশনের পাঁচটি এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পাঁচটি অঞ্চল রয়েছে। আপনার প্রতিষ্ঠানটি যে অঞ্চলের অন্তর্ভুক্ত, ওই অঞ্চলের অফিস থেকেই লাইসেন্স সংগ্রহ করতে হবে।

কোন কোন ব্যবসার জন্য ট্রেড লাইসেন্স নিতে হয়?

প্রায় সব ব্যবসা ও সাধীন পেশার জন্য ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে। এমনকি ফুটপাতে বসে যিনি  পাখা বিক্রি করবেন। অথবা যিনি ঠেলাগাড়ি চালান তার জন্যও আইন মোতাবেক ব্যবসায়িক লাইসেন্স নিতে হবে। আমাদের দেশে আইনের প্রয়োগ নেই বিধায় অনেকে জিনিসটা গুরুত্ব দিতে চায় না। কিন্তু বড় বড় কোম্পানীগুলো ট্রেড লাইসেন্স নাই এমন কারো সাথে ব্যবসা করবে না।

ট্রেড লাইসেন্স আর  কি কাজে লাগে ?

আমাদের ন্যাশনাল আইডি কার্ড যেমন ভোটদান ছাড়াও নানা কাজে লাগে তেমনি ট্রেড লাইসেন্স ব্যবসায়িক নানা কাজে লাগে । বলতে গেলে প্রতি পদে পদে এর প্রয়োজন হয়।

১.ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাব দিয়ে আপনি ব্যবসায়িক লেনদেন করতে পারবেন না। সেক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্স ছাড়া আপনি ব্যবসায়িক হিসাব বা সিডি একাউন্ট বা কারেন্ট একাউন্ট খুলতে পারবেন না। এক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্স এর বিকল্প অন্য কিছু নেই।

২.ব্যবসার শুরুতে বা কোনো পর্যায়ে ব্যাংক লোন দরকার হতে পারে। ট্রেড লাইসেন্স ছাড়া আপনি কখনো ব্যাংক লোন এর কথাই ভাবতেই পারবেন না।

৩.প্রতিস্ঠিত প্রতিষ্ঠানের সাথে ব্যবসা করতে হলে  আপনার ট্রেড লাইসেন্স আছে কিনা তা ওনারা জানতে ও দেখতে চাইবে।

৪.আপনি যদি ব্যবসায়িক এসোসিয়েশন এর সদস্য হতে চান তাহলে আপনার ট্রেড লাইসেন্স অবশ্যই লাগবে।

৫.এছাড়া ভ্যাট ও টিন এর জন্যও ট্রেড লাইসেন্স অপরিহার্য। তাছাড়া আরো অনেক কাজে এর প্রয়োজন পড়ে।

ট্রেড লাইসেন্স করতে কি কি লাগে ?

১.ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের স্থানটি নিজের হলে সিটি করপোরেশনের হালনাগাদ করের রসিদ এবং ভাড়ায় হলে ভাড়ার চুক্তিপত্র বা রসিদ আবেদনপত্রের সঙ্গে দাখিল করতে হবে।

২.আবেদনপত্রের সঙ্গে তিন কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে নির্ধারিত নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে অঙ্গীকারনামা দাখিল করতে হবে।

৩.যদি প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানি লিমিটেড হয় তাহলে মেমোরেন্ডাম অব আর্টিকেলস ও সার্টিফিকেট অব ইনকরপোরেশন দিতে হবে।

৪.জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি

৫.টিন সার্টিফিকেট

৬.বাড়ির ইউটিলিটি বিলেন কপি

৭.যে বাড়ীতে ব্যবসায় পরিচালনা করছেন তার হোল্ডিং টেক্স হালনাগাদ করনের রশিদ

ট্রেড লাইসেন্সে খরচ কেমন  ?

ব্যবসা অনুসারে ট্রেড লাইসেন্স এর খরচ। তবে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন এর অধীনে ৫শ টাকা থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত রেট আছে। সফটওয়ার, আইটি বা জেনারেল সাপ্লায়ার হিসেবে কম বেশী ৫ হাজার। সাথে রয়েছে ভ্যাট।

কোথায় গিয়ে ট্রেড লাইসেন্স বানাবো ?

সরাসরি ইউনিয়ন পরিষদ অফিস, সিটি কর্পোরেশন অথবা পৌরসভায় গিয়ে ট্রেড লাইসেন্স বানাতে পারেন। তবে আজকাল অনেক কনসালটেন্সি ফার্ম আছে যারা নির্দিস্ট সার্ভিস চার্জ এর বিনিময়ে আপনার কাজ করে দিবে। নিজে ঝামেলা পোহাতে না চাইলে কোনো ফার্মের হেল্প নিতে পারেন।

ট্রেড লাইসেন্স করার পর নাম ঠিকানা পরিবর্তন করা যায় কি?

ফি প্রদান ও এফিডেবিটের মাধ্যমে যেকোনো তথ্য পরিবর্তন করা যায়।

একটি ট্রেড লাইসেন্স দিয়ে কি বিভিন্ন ধরনের পন্য বিক্রি বা ব্যবসা করা যায় ?

আপনি বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা একটা ট্রেড লাইসেন্স দিয়ে করতে পারবেন না। তবে আপনি বিভিন্ন রকমের পন্য বিক্রি করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে ক্যাটাগরি হবে জেনারেল সাপ্লায়ার।

একই নামে কি একাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকতে পারে?

হ্যাঁ পারে, তবে যদি আপনি চান যে আপনি যে নামে প্রতিষ্ঠান করবেন সে নামে যেন আর কেউ না করে, অথবা আপনার নামটা যেন কারো সাথে মিলে না যায়। সেক্ষেত্রে আপনাকে কোম্পানী রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

একজন ব্যক্তির কি একাধিক ট্রেড লাইসেন্স থাকতে পারে?

একজন ব্যক্তি একাধিক ট্রেড লাইসেন্স ব্যবহার করতে পারে, এবং সেটা একই ঠিকানায় হতে পারে এবং একাধিক ঠিকানায় হতে পারে।

একটি ট্রেড লাইসেন্স এর মেয়াদ কতদিন? মেয়াদ পূর্ণ হলে কি করতে হবে?

একটি ট্রেড লাইসেন্স এর মেয়াদ এক অর্থ বছর। মেয়াদ শেষ হলে নবায়ন ফি দিয়ে আপনি নবায়ন করে নিতে পারবেন। 


    Tags :

No Comment yet. Be the first :)

Related Posts