ডিএসই এবং সিএসই এর সূচক ও লেনদেনে উত্থান

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচকের উত্থান হয়েছে সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস। একই সঙ্গে বেড়েছে লেনদেন। ডিএসইতে এদিন লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। লেনদেনে অংশ নেয়া ১৭৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ১১৫টির দাম। আর ৫০টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২২ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ২৬৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক আগের দিনের তুলনায় চার পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ২০৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় পাঁচ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৮৪২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। 
দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৬২ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৩৯৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। সে হিসেবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় বাজারে লেনদেন বেড়েছে ৬৪ কোটি ৯২ লাখ টাকা। 
টাকার অঙ্কে এদিন ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে খুলনা পাওয়ারের শেয়ার। দ্বিতীয় স্থানে ছিল ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিডিকম। 
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে ৯ হাজার ৭৬৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। লেনদেন হয়েছে ৪৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৪৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩৩টির দাম বেড়েছে। কমেছে ৭৪টির দাম। আর ৪১টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

Related Posts