পবিত্র ভালোবাসা

পবিত্র ভালবাসা

স্ত্রী রান্না করছে, ভীষন চাপ একাই সব রান্না করতে হবে। এমন সময় হঠাৎ স্বামীর ডাক পরল।

স্বামী : ওগো একটু এদিকে এসো তো

স্ত্রী: কি হয়েছে? বলুন, আমি এখন রান্না করছি।

স্বামী : আরে একটু আসোই না কাজ পরে করো।

স্ত্রী : উফ আর পারি না কি যে করি

স্বামী: (মুচকি হাসি দিয়ে) আসো তো তোমার জন্য একটা হাদিয়া রেখেছি। নিয়ে যাও।

স্ত্রী: ( খানিকটা বিরক্তি নিয়ে) ভাব দেখ আরেকজনের। এমন সময় আবার হাদিয়া।

স্বামী: এসেই দেখো। পেলে অনেক খুশি হবে তুমি।

স্ত্রী:ঠিক আছে। হাতের কাজ টা সেরে আসছি

কিছক্ষন পর স্বামীর নিকট হাজির হলো স্ত্রী।

স্ত্রী : জাহাপনা কি হয়েছে?? এমন করে ডাকা ডাকি কেনো?

স্বামী ডান হাতে দরজাটা লাগিয়ে বাম হাতে স্ত্রীকে জরিয়ে বুকে কাছে টেনে এনে কপালে একটা মিষ্টি চুম্বন একে দিলো।

স্ত্রী তো লাজুকলতা হয়ে চোখ নিচের দিকে নামিয়ে নিলো।

স্বামী ডান হাত দিয়ে স্ত্রীর থুতনি ধরে চেহারাটা উপরে উঠিয়ে বলল

স্বামী : প্রিয় তমা । আমি এখন নামাযে যাচ্ছি রাসূল সা: কখনো কখনো নামাযে যাবার আগে হযরত আয়েশা রা: কে চুম্বন করতেন। তাই আমিও রাসূলের এই সুন্নত টি পালন করলাম।

যাও প্রিয় তমা এবার বাকি কাজ কর গিয়ে আমি নামায পরে এসেই খেয়ে কাজে যাব।

স্ত্রী আবেগপ্লুত হয়ে তাকিয়ে রইল স্বামীর বিদায় পানে। চোখের কোনে ভালবাসার অশ্রু মুছতে মুছতে অজান্তে বলতে থাকল

হে আমার প্রভু যেই মানুষটি আমাকে এত টা ভালবাসে তাকে তুমি ভালো রেখো

কখনো কষ্টে ফেলোনা।

আমাকে তার যথাযথ মুল্যয়ন করার তাওফিক দান করো।,,,আমিন,,,

    Tags :

No Comment yet. Be the first :)

Related Posts