সুস্বাদু বারবিকিউ ব্যানানা চিপসএর সহজ রেসিপি স্ন্যাক্স

সুস্বাদু বারবিকিউ ব্যানানা চিপস এর সহজ রেসিপি   স্ন্যাক্স

লেবু ও পুদিনা পাতার ঘ্রানে দারুন স্বাদের ক্রিস্পি বারবিকিউ ব্যানানা চিপস আপনিও ট্রাই করে দেখুন । অনেক সহজ রেসিপির এই খাবারটি হালকা নাস্তার জন্য পারফেক্ট।


বারবিকিউ ব্যানানা চিপস এর সহজ রেসিপি

উপকরণঃ

কাঁচা কলা – ৩ টি

লবন – সামান্য

হলুদ – সামান্য

বারবিকিউ মশলাঃ

স্বাদ ম্যাজিক মশলা -১ প্যাকেট

জিরা টেলে গুঁড়া করা – ১/২ চা চামচ

ধনিয়া টেলে গুঁড়া করা – সামান্য

টেস্টিং সল্ট – সামান্য (ঐচ্ছিক )

বিট লবন – পরিমান মতো

গুঁড়া মরিচ – স্বাদ অনুযায়ী

সব এক সাথে ভাল করে মিক্স করে রাখুন ।

প্রনালিঃ

খোসা মাঝখান থেকে অল্প কেটে নিয়ে স্টিলের চামচ ঢুকিয়ে খোসা আলাদ করে নিন । এভাবে করলে খোসার সবুজ অংশ একেবারেই থাকবে না । চিপসের কালার সুন্দর আসবে ।

এভাবে খোসা ছিলতে না পারলে চাকু বা বটি দিয়ে খোসার সবুজ অংশ ভালভাবে ছাড়িয়ে ডুবো পানিতে ভিজিয়ে রাখুন ।

এবার একটা করে কলা চিপস কাটার বা গ্রেটারের যে চিপস কাটার থাকে সেটা বা বটি , চাকু দিয়ে মাঝারি পাতলা করে কাটুন । বেশি পাতলা করে কাটলে টেস্ট পাবেন না আর বেশি মোটা করে কাটলে মচমচা হবে না ।

এবার কলার স্লাইস গুলো খুবই সামান্য লবন ও হলুদ দিয়ে মিক্স করে গরম তেলে দিয়ে দিন । দুই তিন বারে ভাজুন ডুবো তেলে ।

হলুদের পরিমানের উপরে আপনার চিপসের কালার নির্ভর করবে ।

কলার চিপস খুব দ্রুত ভাজা হয়ে যায় । মচমচা হয়ে গেলে ও হালকা বাদামি কালার হলেই তেল ছেঁকে কিচেন টিস্যুর উপরে রাখুন ।

বেশি বাদামি কালার করবেন না তিতা লাগবে । কলা অল্প তেই পুড়ে যায় ।

এবার গরম থাকতে বারবিকিউ মশলা অল্প করে ছিটিয়ে দিন ।

সব কলা এক সাথে স্লাইস করে লবন ও হলুদ মিশিয়ে রাখলে পানি ছেড়ে নরম হয়ে যাবে । তাই অল্প করে কেটে ভাজুন । তিনটা এক সাথেই কেটে নিতে পারেন সেক্ষেত্রে দ্রুত ভেজে ফেলতে হবে ।

চিপস গুলো গরম ভাপ যাওয়ার পরে এয়ার টাইট বক্সে রেখে দিন ।

টিপসঃ

কলা বেশি কাঁচা নেয়ার থেকে একটু হলুদ ভাব আছে এমন কলা নিলে চিপস হালকা মিষ্টি লাগবে । হলুদ ভাবটা খুবই সামান্য হতে হবে ।

চাইলে চিপসে সামান্য পাউডার সুগার ছিটিয়ে পরিবেশন করতে পারেন ।

পরিবেশনঃ

লেমন জেস্ট ও মিন্ট কুচি করে চিপসের উপর ছিটিয়ে পরিবেশন করুন ।

    Tags :

Related Posts