তথ্য-প্রযুক্তির এ যুগে মোবাইল নেটওয়ার্কের আওতায় নেই এমন জায়গা খুঁজে পাওয়া বেশ কঠিন। বিশ্বের আনাচে-কানাচে নেটওয়ার্ক ছড়িয়ে দিতে সদাতৎপর টেলিকম কোম্পানিগুলো। শুধু পৃথিবী নয়, পৃথিবীর বাইরের গ্রহ-নক্ষত্রে নেটওয়ার্ক ছড়িয়ে দেওয়ার কথা ভাবছেন বিজ্ঞানীরা।

চাঁদকে মোবাইল নেটওয়ার্কের আওতায় আনার পরিকল্পনা করছে মহাকাশ গবেষণা সংস্থাগুলো। পরিকল্পনা অনুযায়ী, ২০১৯ সালে ফোর-জি মোবাইল নেটওয়ার্ক পৌঁছে যাবে চাঁদে। এর ফলে চাঁদ থেকে সরাসরি মোবাইল ফোনে কথা বলা যাবে পৃথিবীতে। শুধু মোবাইল ফোনে কথা বলা ছাড়াও নানাবিধ সুযোগ-সুবিধা থাকছে চাঁদের মোবাইল নেটওয়ার্কের সঙ্গে। এর মাধ্যমে চাঁদে বসেই হাই-ডেফিনিশন ভিডিও স্ট্রিমিং করা যাবে। তাছাড়া রয়েছে চাঁদ থেকে পৃথিবীতে দ্রুতগতির ডাটা আদান-প্রদানের সুবিধা। মানুষের মহাকাশ অভিযান ও চাঁদে ঘাঁটি স্থাপন কেন্দ্র করেই এ পরিকল্পনা। চাঁদে মোবাইল নেটওয়ার্ক স্থাপনের মূল পরিকল্পনাটি জার্মানভিত্তিক গবেষণা সংস্থা পিটিসায়েন্টিস্টের। সহযোগী সংস্থা হিসেবে এতে কাজ করবে ভোডাফোন জার্মানি এবং অডি। প্রযুক্তিগত সহায়তা দেবে নোকিয়া।

পিটিসায়েন্টিস্টের প্রধান নির্বাহী রবার্ট বোহ্ম একটি বিবৃতিতে বলেন, মহাকাশ অভিযানের স্বার্থে আমাদের উচিত পৃথিবীর বাইরেও অবকাঠামো নির্মাণ করা। এজন্য আমাদের প্রয়োজন সহজ ও দ্রুতগতির যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপন করা। জানা যায়, ২০১৯ সালে স্পেস এক্সের ‘ফ্যালকন নাইন’ রকেটের মাধ্যমে চাঁদে মোবাইল নেটওয়ার্ক স্থাপনের মিশনটি বাস্তবায়ন করা হবে।